September 26, 2022, 10:37 pm


স্টাফ করেসপন্ডেন্ট

Published:
2022-08-04 14:04:17 BdST

প্রকাশিত সংবাদে প্রগ্রেসিভ লাইফের প্রতিবাদ ও প্রতিবেদকের বক্তব্য


দ্য ফিনান্স টুডে ডট নেট অনলাইন ফিনান্সিয়াল নিউজ পোর্টালে ০১ আগস্ট ২০২২-এ প্রকাশিত ‘বীমাখাতে দুর্নীতির কালো বিড়াল... প্রগ্রেসিভ লাইফে পরিচালনা পর্যদ ও ব্যবস্থাপনা পর্যদ মিলে গড়ে তুলেছে লুটপাটের রাজত্ব’ শীর্ষক সংবাদের প্রতিবাদ জানিয়েছে প্রগ্রেসিভ লাইফ ইনসিওরেন্স কোম্পানী লিমিটেড। প্রতিষ্ঠানটির মুখ্য নির্বাহী কর্মকর্তা অজিত চন্দ্র আইচ স্বাক্ষরিত প্রতিবাদলিপিতে সংবাদটিকে উদ্দেশ্যপ্রনোদিত, মিথ্যা বানোয়াট আখ্যা দেওয়া হয়েছে। এমনকি সংবাদটিকে অনলাইন পোর্টাল নীতিমালা বিরোধী বলে দাবী করা হয়েছে।

প্রতিবাদ লিপিতে ১১৪ কোটি ২১ লাখ ৭৫ হাজার ৫৩৫ টাকা আত্মসাতের অভিযোগকে ভিত্তিহীন বলা হয়েছে। সাধারণ সভা বন্ধ রাখার বিষয়টি মিথ্যাচার বলা হয়েছে। এতে ‘বিশেষ কোন অর্থনৈতিক ও অসৎ উদ্দেশ্য চরিতার্থ করতে’ সংবাদ প্রকাশ করা হয়েছে বলে দাবী করা হয়। কোম্পানী সচিব মো. জহির উদ্দিনের অনিয়ম ও একাকাই ৫টি পদ দখল করে রাখার বিষয়টি মিথ্যা  বলে দাবী করা হয়েছে।  এছাড়া ৪ কোটি ৮০ লাখ টাকা আত্মসাতের বিষয়কে কলম সন্ত্রাস ও ব্যক্তিগত আক্রামণ বলে দাবী করা হয়।

প্রতিবেদকের বক্তব্য : আমরা বীমা উন্নয়ণ ও নিয়ন্ত্রণ কর্তৃপক্ষ (আইডিআরএ), দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক) ও প্রগ্রেসিভ লাইফ ইন্সসিওরেন্স কোম্পানীর বেশ কয়েকটি বোর্ড সভার পর্যালোচনা এবং বিভিন্ন সিদ্ধান্ত, আদালত করা মামলা ও চার্টার্ড একাউট্যন্ট প্রতিষ্ঠানসহ বিভিন্ন দপ্তর থেকে প্রাপ্ত নথিপত্রের আলোকে প্রতিবেদনটি তৈরি করেছি। এই প্রতিবেদনে প্রকাশিত প্রতিটি তথ্যের স্বপক্ষে আমাদের কাছে পর্যাপ্ত প্রমাণাদি সংরক্ষিত রয়েছে। প্রায় ১১৪ কোটি টাকা আত্মসাতের অভিযোগে প্রগ্রেসিভ লাইফ ইন্সুরেন্স কোম্পানীর পক্ষ থেকে মামলা করা ও আরও মামলা প্রক্রিয়াধীন থাকার বিষয়টি প্রতিবাদলিপিতেও স্বীকার করে নেওয়া হয়েছে। যা আমাদের প্রতিবেদনের সতত্যা প্রমাণ দেয়।  এছাড়া তাদের প্রতিবাদলিপিতেই নানা কৌশলে সাধারণ সভা বন্ধ রাখার বিষয়টিও স্বীকার করে নেওয়া হয়েছে। কোম্পানী সচিব একাই ৫টি পদে থাকার বিষয়ে আমাদের কাছে নথিপত্র রয়েছে। তিনি ঢাকা আইনজীবী সমিতির একজন সদস্য, যার নম্বও ৫৫৮৯। তিনি ঢাকা বারের সদস্যনীতিমালা  লংঘন করে প্রতিষ্ঠানটিরত বেশ কয়েকটি গুরুত্বপূর্ণ পদে একাই দায়িত্ব পালন করছেন। এর আগে তিনি হোমল্যান্ড লাইফ ইন্সুরেন্স কোম্পানীতে কর্মরত থাকার সময় দুর্নীতির কারণে তাকে দায়িত্ব থেকে অব্যাহতি দেওয়া হয়। ওই কোম্পানীতে থাকার সময় তার নানা বিষয়ে দুর্নীতি অনিয়মের বিভিন্ন নথিপত্রও আমাদের কাছে সংরক্ষিত আছে। এছাড়া প্রতিবাদ লিপিতে যে ৪ কোটি ৮০ লাখ টাকা আত্মসাতের কথা বলা হয়েছে সেখানে জুনিয়র কয়েকজন কর্মকর্তার ওপর দায় চাপিয়ে ঊর্ধ্বতনরা দায় এড়িয়ে যাওয়ার চেষ্টা করেছেন বলে আমাদের কাছে প্রতিয়মান হয়েছে।

প্রতিবেদনটি তৈরি কালে সাংবাদিকতার নীতিমালা অনুসরণ করে দায়িত্বশীল কর্তৃপক্ষের বক্তব্য নেওয়ার জন্য তাদেরকে মোবাইল ফোনে কল করা হয় এবং ক্ষুদে বার্তা (এসএমএস) পাঠানো হয়। এছাড়াও মোবাইল ফোনের হোয়াটসঅ্যাপে বক্তব্য জানতে চেয়ে বার্তা দেওয়া হয়। সংশ্লিষ্ট দায়িত্বশীল বেশ কয়েকজন কর্মকর্তা প্রতিবেদকের সঙ্গে বিষয়টি অবগত হওয়ার পরও কোন বক্তব্য দেননি বরং একজন কর্মকর্তা রুঢ় আচরণ করেন। যা কোনভাবেই প্রত্যাশিত ছিল না।

প্রকাশিত প্রতিবাদ লিপিতে আমাদেরকে সমাজে হেয় করার অপচেষ্টা ও আইনীগত ব্যবস্থা নেওয়ার হুমকি দেওয়া হয়েছে। পুঁজিবাজারের তালিকাভুক্ত এই লিমিটেড কোম্পানীতে বড় অনিয়ম, আর্থিক কেলেঙ্করি ও জালিয়াতি লক্ষ লক্ষ গ্রাহকের আমানত ও অংশীদারদের বিনিয়োগ মারাত্মক হুমকিতে পড়বে বলে আমরা আশঙ্কা করছি। তাই দেশের স্বার্থে ও মানুষের কল্যাণে দুর্নীতিবাজদের মুখোশ উন্মোচন করে তাদেরকে আইনের হাতে তুলে দেওয়ার লক্ষ্যে আমাদের কাছে থাকা নথিপত্রের আলোকে বিশাল এই আর্থিক কেলেঙ্করির বিষয়টি ধারাবাহিকভাবে তুলে ধরে আমাদের লেখা অব্যাহত থাকবে।

Unauthorized use or reproduction of The Finance Today content for commercial purposes is strictly prohibited.


Popular Article from Insurance