June 16, 2021, 10:52 pm


নিজস্ব প্রতিবেদক

Published:
2021-06-09 13:47:19 BdST

কুমিল্লা- ৫ আসনের জনগণের সেবক হতে চান এমপি প্রার্থী আল আমীন অর্ণব


বর্তমান আওয়ামী লীগ সরকার ২০০৮ সালে বিপুল ভোটে জয়ী হয়ে সরকার গঠন করে। পরপর তিন বার জয়ী হয়ে সংসদের সংখ্যাগরিষ্ঠতা নিয়ে প্রতিনিধিত্ব করছে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ। সাবেক আইনমন্ত্রী এডভোকেট আব্দুল মতিন খসরুর ইন্তেকালের পর কুমিল্লা -৫ আসন শূন্য ঘোষণা করা হয়। এই আসনে বর্তমান ক্ষমতাসীন দল আওয়ামী লীগের বেশ কয়েকজন নেতা মনোনয়ন সংগ্রহ করেছেন। তরুণ প্রজন্মের প্রতিশ্রুতিশীল নেতা ও সাবেক ছাত্রলীগ নেতা আল আমীন অর্ণব এমপি নির্বাচনের জন্য মনোনয়ন সংগ্রহ করেছেন। তিনি কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক প্রতিষ্ঠাতা যুগ্ম-আহ্বায়ক ও বর্তমান কুমিল্লা দক্ষিণ জেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক।

মনোনয়ন সংগ্রহ করে আল আমীন অর্নব বলেন, আমি জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের হাতে গড়া সংগঠন ছাত্রলীগ থেকে বর্তমান রাজনীতির সাথে যুক্ত। বঙ্গবন্ধুর আদর্শকে বুকে ধারণ করে জননেত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে উন্নয়নের যে জোয়ার সৃষ্টি হয়েছে তাকে ত্বরান্বিত করতে এবং দুর্নীতিমুক্ত বাংলাদেশ প্রতিষ্ঠা করতে এমপি নির্বাচনের সিদ্ধান্ত নিয়েছি। এলাকার জনগণ আমার শক্তি। আমি বিশ্বাস করি তরুণ প্রজন্মের হাত ধরে এগিয়ে যাবে সোনার বাংলাদেশ। দল যদি আমাকে মনোনয়ন দেন তাহলে আমি বেশ কিছু পদক্ষেপ গ্রহণ করতে চাই তার মধ্যে অন্যতম, মাদক ও সন্ত্রাস মুক্ত বুড়িচং-ব্রাহ্মণপাড়া থানা গড়া, তরুণ প্রজন্মের জন্য কর্মসংস্থান নিশ্চিত করতে ইউনিয়ন ভিত্তিক গ্রামীণ মিনি ইন্ডাস্ট্রি জোন প্রতিষ্ঠা করা, নারীদের জন্য আলাদা কর্মসংস্থান ও সামাজিক নিরাপত্তা নিশ্চিতে কর্মপরিকল্পনা গ্রহণ, আধুনিক এবং উন্নত শিক্ষা ব্যবস্থা নিশ্চিত করতে বুড়িচং ব্রাহ্মনপাড়ায় একটি বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিষ্ঠা, এবং পথ শিশুদের জন্য প্রত্যেকটি বাজারে একটি করে স্কুল নির্মান, ধর্মীয় শিক্ষাব্যবস্থা জোরদার এবং সংখ্যালঘুদের সামাজিক নিরাপত্তা নিশ্চিত করা। আমি বিশ্বাস করি আমার দল আমার উপরে আস্থা রাখবেন। আমি সকলের দোয়া ও ভালোবাসা কামনা করছি।

১৭ ইউনিয়ন নিয়ে কুমিল্লা-৫ আসন। ইতোমধ্যে সরকারদলীয় হেভিওয়েট বেশ কয়েকজন নেতা দলীয় মনোনয়ন সংগ্রহ করেছেন।

Unauthorized use or reproduction of The Finance Today content for commercial purposes is strictly prohibited.


Popular Article from FT বাংলা