October 20, 2021, 12:51 pm


অনলাইন ডেস্ক

Published:
2021-09-20 13:07:06 BdST

ইউপি নির্বাচন অবাধ-নিরপেক্ষ হবে: আশা ইসির


দেশের ১৬০ ইউনিয়ন পরিষদ (ইউপি) ও নয়টি পৌরসভা নির্বাচন অবাধ, সুষ্ঠু ও গ্রহণযোগ্য হবে বলে আশাবাদ ব্যক্ত করেছেন নির্বাচন কমিশন সচিব মো. হুমায়ুন কবীর খোন্দকার

রোববার (১৯ সেপ্টেম্বর) বিকেলে নির্বাচন ভবনের মিডিয়া সেন্টারে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে ''দেশের ১৬০ ইউনিয়ন পরিষদ (ইউপি) ও নয়টি পৌরসভা নির্বাচন অবাধ, সুষ্ঠু ও গ্রহণযোগ্য হবে বলে আশাবাদ ব্যক্ত করেছেন নির্বাচন কমিশন সচিব মো. হুমায়ুন কবীর খোন্দকার''। সোমবার সকাল ৮টা থেকে বিকেল ৪টা পর্যন্ত এ নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে।

ইসি সচিব বলেন, তফসিল অনুযায়ী, ১৬১টি ইউপি ভোট হওয়ার কথা থাকলেও আদালতের আদেশে মোড়লগঞ্জের নিশানবাড়িয়া ইউপি নির্বাচন স্থগিত করা হয়েছে। তাই বলে রাখি ১৬০টিতে ভোট হবে হবে। এছাড়া, এদিন নয়টি পৌরসভা ও দুটি উপজেলার ভাইস চেয়ারম্যান পদেও ভোট হবে।

পৌরসভাগুলো হলো, পঞ্চগড়ের দেবীগঞ্জ, যশোরের নওয়াপাড়া, ফরিদপুরের ভাঙ্গা, কুমিল্লার নাঙ্গলকোট, ফেনীর সোনাগাজী, নোয়াখালী কবিরহাট, চট্টগ্রামের বোয়ালখালী, কক্সবাজারের মহেশখালী ও চকরিয়া। সবগুলোতে ইলেকট্রনিক ভোটিং মেশিনে (ইভিএম) ভোটগ্রহণ হবে।

হুমায়ুন কবীর খোন্দকার বলেন, নির্বাচনী সরঞ্জাম জেলায় পৌঁছে গেছে। প্রশিক্ষণ হয়েছে। মাঠে মোতায়েন রয়েছেন আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী সদস্যরা। সাধারণ ভোটকেন্দ্রে ১১ জন ও ঝুঁকিপূর্ণ কেন্দ্রে ১৩ জনের ফোর্স মোতায়েন করা হয়েছে। এছাড়া ৮১ জন নির্বাহী ও নয়জন বিচারিক হাকিমসহ র‍্যাব ও বিজিবির সদস্যদের মোতায়েন করা হয়েছে। তিনটি পৌরসভায় মেয়র প্রার্থীরা বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত হয়েছেন।

১৬০টি ইউপির মধ্যে ৪৪টিতে চেয়ারম্যান প্রার্থীরা বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত হয়েছে। তবে অন্য পদগুলোতে বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত না হওয়ায় ১৬০টিতেই ভোট হবে। এর মধ্যে ১১টিতে ইভিএমে ভোটগ্রহণ করা হব।

ইসি সচিব বলেন, প্রতি ভোটকেন্দ্রে বিভিন্ন বাহিনীর ২২ জনের ফোর্স মোতায়েন করা হয়েছে। ৯২জন নির্বাহী হাকিম ও ৫৭ জন বিচারিক হাকিম দায়িত্ব পালন করছেন নির্বাচনী অপরাধসহ অন্যান্য অপরাধের সংক্ষিপ্ত বিচার কাজ সম্পন্ন করতে। এছাড়া র‍্যাব, বিজিবি, কোস্ট গার্ডের সদস্যরাও মোতায়েন করা হয়েছে।

হুমায়ুন কবীর খোন্দকার বলেন, আমরা যে প্রস্তুতি নিয়েছি, তাতে অবাধ, সুষ্ঠু ও গ্রহণযোগ্য নির্বাচন হবে বলে আশা করি। 

৩০ শতাংশ ইউপিতে বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় প্রার্থিদের নির্বাচিত হওয়ার বিষয়ে তিনি বলেন, কেউ প্রতিযোগিতা না করলে বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় হবেই।

সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে ইসি সচিব বলেন, অতিরিক্ত ফোর্স দিয়েছি কয়েকটি জায়গায়। সুন্দর পরিবেশ রাখার জন্য রিটার্নিং কর্মকর্তারা অতিরিক্ত ফোর্স দিতে বলেছেন, আমরা সে ব্যবস্থা নিয়েছি। 

তিনি বলেন, রিটার্নিং কর্মকর্তারা যেখানে সুষ্ঠু ভোটের জন্য সকালে ব্যালট পেপার চেয়েছেন, সেভাবেই সেখানে অনুমোদন দিয়েছি। আশা করি, সুষ্ঠু, নিরপেক্ষ ও গ্রহণযোগ্য নির্বাচন হবে। আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীও আমাদের জানিয়েছে, তারা সর্বোচ্চ চেষ্টা করবে।

Unauthorized use or reproduction of The Finance Today content for commercial purposes is strictly prohibited.


Popular Article from FT বাংলা