Siyam Hoque

Published:
2020-04-01 17:47:33 BdST

চাপে পড়ে করোনা টেস্ট কিট রপ্তানিতে কঠোর হলো চীন


করোনাভাইরাসের টেস্ট কিট ও চিকিৎসা সামগ্রী রপ্তানিতে কঠোর হয়েছে চীন। দেশটি জানিয়েছে, করোনাভাইরাস পরীক্ষার কিট এবং সম্পর্কিত চিকিৎসা সামগ্রী সরবরাহকারী চীনা উৎপাদনকারী প্রতিষ্ঠানকে বলা হয়েছে, তাদের পণ্যগুলি দেশীয় বাজারে বিক্রির জন্য লাইসেন্স না থাকলে তারা আর রপ্তানি করতে পারবে না।

তাদের রপ্তানি করা টেস্ট কিট, চিকিৎসা সামগ্রীর মান নিয়ে  ইউরোপীয় কিছু ক্রেতার অভিযোগের কারণে বেইজিং এমন কঠোর করেছে সিদ্ধান্ত নিল।

দেশটির বাণিজ্য মন্ত্রণালয়, শুল্কের সাধারণ প্রশাসন ও জাতীয় মেডিকেল পণ্য প্রশাসনের মঙ্গলবার জারি করা এক যৌথ বিবৃতিতে বলা হয়েছে, টেস্ট কিট, ফেস মাস্ক, প্রতিরক্ষামূলক পোশাক, ভেন্টিলেটর এবং ইনফ্রারেড থার্মোমিটার রফতানি করতে চাওয়া সমস্ত সংস্থাকে এই নতুন নিয়ম মেনে চলতে হবে।  খবর সাউথ চায়না মর্নিং পোস্টের

বিবৃতিতে আরও বলা হয়, সংস্থাগুলিকে চীনা কাস্টমস এজেন্সির কাছে দেখাতে হবে, তাদের পণ্য যেসব দেশে পণ্য রপ্তানি হচ্ছে সেখানকার মান পূরণ করে কিনা।

দেশটির বাণিজ্য মন্ত্রণালয় এসব চিকিৎসা সামগ্রী রপ্তানি করে লাইসেন্স ও রেজিস্ট্রেশনপ্রাপ্ত এমন প্রতিষ্ঠানের একটি তালিকাও প্রকাশ করেছে।

বিশ্বব্যাপী করোনাভাইরাসের সর্বশেষ পরিসংখ্যান জানার অন্যতম ওয়েবসাইট  ওয়ার্ল্ডোমিটারের তথ্য অনুযায়ী, গত ১০ জানুয়ারি চীনে প্রথমবারের মতো করোনাভাইরাস আক্রান্ত রোগী শনাক্ত করা হয়। 

ভাইরাসটির উৎপত্তিস্থল চীনে হলেও দেশটির সরকারের নেওয়া নানা নিয়ন্ত্রণ ব্যবস্থায় সেখানে ভাইরাসের সংক্রমণ তাৎপর্যপূর্ণভাবে হ্রাস পেলেও ইউরোপের ইতালি, স্পেন ও যুক্তরাষ্ট্রে তা ভয়ঙ্কর রূপ ধারণ করেছে। 

জন্স হপকিন্স ইউনিভার্সিটির সেন্টার ফর সিস্টেম সায়েন্সেস অ্যান্ড ইঞ্জিনিয়ারিংয়ের (সিএসএসই) তথ্য অনুযায়ী, বুধবার দুপুর পর্যন্ত বিশ্বে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে মৃত্যু হয়েছে ৪২ হাজার ৩৪৫ জনের। আর বিশ্বে এই ভাইরাসে আক্রান্তের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে  ৮ লাখ ৬০ হাজার ১৮১ জনে। এদের মধ্যে ইতোমধ্যে সুস্থ হয়ে উঠেছেন ১ লাখ ৭৮ হাজার ৩৫৯ জন।

Unauthorized use or reproduction of The Finance Today content for commercial purposes is strictly prohibited.


Popular Article from FT বাংলা